মোংলায় সংখ্যালঘুর চিংড়ি ঘের লুট, গৈঘরে আগুন

title
৪ মাস আগে
মোংলায় এক সংখ্যালঘুর চিংড়ি ঘেরের মাছ লুটে নিয়ে ঘেরের গৈঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের চৌরিডাঙ্গা গ্রামের সাতপুকুর এলাকায় রবিবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকার মান্নান শেখের ছেলে হুমায়ূন কবির (৪০) ও মৃত সৈয়দ আহম্মদ মীরের ছেলে রেজাউল ইসলাম মীরসহ (৪৫) অজ্ঞাত আরো ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী রনজিৎ মিস্ত্রি। মোংলা থানায় দায়েরকৃত অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানা যায়, গত শনিবার রনজিৎ মিস্ত্রির চিংড়ি ঘের থেকে হুমায়ূন কবির ও রেজাউল মীরসহ আরও কয়েকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে এক লাখ ৭০ হাজার টাকার মাছ লুটে নেয়। বিজ্ঞাপন এ ঘটনায় রনজিৎ বাধা দিলে তাকে হুমকি-ধামকি দিয়ে বীরদর্পে ওই এলাকা ত্যাগ করে তারা। এ ঘটনা এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে পরদিন রবিবার (২২ জানুয়ারি) গভীর রাতে অভিযুক্ত হুমায়ুন ও রেজাউল ওই ঘেরের গৈঘরে আগুন দেয়। এদিকে, এ ঘটনায় অভিযুক্ত হুমায়ুন ও রেজাউলের বক্তব্য জানতে তাদের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উৎপল মন্ডল বলেন, ভুক্তভোগীদের কাছে ঘটনার বর্ণনা শুনেছি। এ ঘটনায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ ও সুষ্ঠু বিচারের দাবি করছি। মোংলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।