বেশি কথা বলার পরিণতি

title
২ মাস আগে
মুখ আছে বলেই শুধু কথা বলতে থাকবেএমনটি যেন না হয়। কেননা, কথা বলার জন্য মুখ একটি আর কথা শোনার জন্য কান দুটি। তাই উত্তম কথা বলতে হবে নতুবা চুপ থাকতে হবে। রাসুল (সা.) বলেন, যে ব্যক্তি আল্লাহ ও পরকালের প্রতি ঈমান রাখে সে যেন উত্তম কথা বলে অথবা চুপ থাকে। বিজ্ঞাপন (বুখারি, হাদিস : ৬০১৮-১৯; মুসলিম, হাদিস : ৪৭-৪৮) প্রয়োজনের অতিরিক্ত কথা বললে বেশি ভুল হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ভুল মানুষের জন্য মন্দ পরিণতি ডেকে আনতে পারে। নবী করিম (সা.) বলেন, নিশ্চয়ই বান্দা কখনো আল্লাহর সন্তুষ্টির কোনো কথা বলে অথচ সে কথা সম্পর্কে তার জ্ঞান নেই। কিন্তু এ কথার দ্বারা আল্লাহ তার মর্যাদা বৃদ্ধি করে দেন। আবার বান্দা কখনো আল্লাহর অসন্তুষ্টির কথা বলে ফেলে, যার পরিণতি সম্পর্কে তার ধারণা নেই, অথচ সে কথার কারণে সে জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত হবে। (বুখারি, হাদিস : ৬৪৭৮) অন্য বর্ণনায় এসেছে, বান্দা এমন কথা বলে, যার ফলে সে জাহান্নামের এত দূরে নিক্ষিপ্ত হয়, যা পূর্ব ও পশ্চিম দিগন্তের মধ্যস্থিত ব্যবধানের চেয়ে বেশি। (মুসলিম, হাদিস : ২৯৮৮) সুতরাং হাদিস থেকে জানা গেল যে বেশি কথা বলা কখনো কখনো জাহান্নামে যাওয়ার কারণ হতে পারে।