স্ত্রীর করা যৌতুকের মামলায় নবীগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

title
৯ দিন আগে
নবীগঞ্জেস্ত্রীর করাযৌতুকের মামলায় সুদ ও দাদন ব্যবসায়ী আব্দুলমালিক (৪৬) নামে এক পলাতক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে নবীগঞ্জ উপজেলার গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। ধৃত ব্যক্তি উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের লামলু গ্রামের আব্দুর রহমান ওরফে ছাও মিয়ার ছেলে। সে ওই ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। মামলা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গজনাইপুর ইউনিয়নের দরগাপাড়া গ্রামের মৃত নৌসেদ আলীর কন্যা শাহ জলি বেগম লামলু গ্রামের আব্দুর রহমান ওরফে ছাও মিয়ার ছেলের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিজ্ঞাপন বিয়ের পর থেকেই যৌতুক লোভী আব্দুল মালিক যৌতুকের টাকার জন্য তাকে নির্যাতন করত। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকত। স্থানীয় সালিসদাররা বিচার করে তাদের মধ্যে সম্পর্ক বজায় রাখতে চেষ্টা করেন। সুদ ও দাদন ব্যবসায়ী আব্দুল মালিক গত ৩ জুলাই সুদের ব্যবসার বৃদ্ধির জন্য ৪ লাখ টাকা তার স্ত্রীর কাছে দাবি করেন। টাকার দাবি করে তাকে মারধর করেন আব্দুল মালিক। তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেন। ওই ঘটনায় আব্দুল মালিকের স্ত্রী বাদি হয়ে হবিগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করলে ওই মামলায় তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পুলিশ জানায়, আব্দুল মালিকের বিরুদ্ধে তার স্ত্রীর দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ শামসুদ্দিন খাঁন তদন্ত কেন্দ্রের এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ শামসুদ্দিন খাঁন।