রাসায়নিক দুর্ঘটনা রোধে আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ কোর্স ঢাকায় সমাপ্ত

title
৪ দিন আগে
বাংলাদেশ জাতীয় কর্তৃপক্ষ, রাসায়নিক অস্ত্র কনভেনশন (বিএনএসিডব্লিউসি) এবং অর্গানাইজেশন ফর দ্যা প্রহিবিশন অব কেমিক্যাল উইপন্স (ওপিসিডব্লিউ)-এর যৌথ আয়োজনে রাসায়নিক অস্ত্র নিরোধ ও রাসায়নিক দুর্ঘটনা রোধে আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ কোর্স ঢাকায় সম্পন্ন হয়েছে। কোর্সটি গত ১৯ জুন হোটেল লো মেরিডিয়েনে আরম্ভ হয় এবং আজ বৃহষ্পতিবার (২৩ জুন) সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হয়। আইএসপিআর জানায়, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান, এমপি এ কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এবং অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদপত্র বিতরণ করেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লেফটেন্যান্ট জেনারেল সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লে. জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান। বিজ্ঞাপন এছাড়াও ওপিসিডব্লিউর প্রতিনিধিসহ বাংলাদেশ জাতীয় কর্তৃপক্ষ রাসায়নিক অস্ত্র কনভেনশন, সেনা বাহিনী, নৌ বাহিনী, বিমান বাহিনী, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং সার্কভুক্ত দেশের প্রশিক্ষণার্থীরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষণার্থীরা কেমিকেল ওয়ারফেয়ার এজেন্ট সনাক্তকরণ, উদ্ধার সরঞ্জাম ব্যবহার এবং রাসায়নিক দূর্যোগ অথবা দূর্ঘটনায় জরুরী উদ্ধারকাজ পরিচালনা কৌশল সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেন। গত বুধবার কোর্সটির ব্যবহারিক অংশ ঢাকার মিরপুরস্থ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ট্রেনিং কমপ্লেক্সে (২২-০৬-অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণে ওপিসিডব্লিউ থেকে চার জন প্রশিক্ষক এবং ভারত, পাকিস্তান, নেপাল মালদ্বীপ ও শ্রীলংকা থেকে ২০ জন প্রশিক্ষকসহ বাংলাদেশের ১৭ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশ নেন। এর আগে ২০১৮ সালে বিএনএসিডব্লিউসি ও ওপিসিডব্লিউর যৌথ আয়োজনে এ ধরণের কোর্স পরিচালিত হয়। গতকালের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ওপিসিডব্লিউ ও বিএনএসিডব্লিউসিকে এই প্রশিক্ষণ কোর্স আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং আশা প্রকাশ করেন, ভবিষ্যতে রাসায়নিক দুর্যোগ অথবা দুর্ঘটনা মোকাবেলায় বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। রাসায়নিক দ্রব্যের নিরাপদ ও অস্ত্রমুক্ত ব্যবহারের মাধ্যমে রাসায়নিক অস্ত্রমুক্ত পৃথিবী গড়ার লক্ষ্যে ওপিসিডব্লিউর সাথে বাংলাদেশের একযোগে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করে প্রধান অতিথি কোর্সটির সমাপনী ঘোষণা করেন।