নাসির-অমির বিরুদ্ধে মামলাটি ঠিকভাবে তদন্ত হয়নি : পরী মনি

title
২ মাস আগে
চিত্রনায়িকা পরী মনিকে মারধর, বিভিন্ন ধরনের হুমকি ও যৌন হয়রানির অভিযোগে করা মামলায় ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদ ও তুহিন সিদ্দিকী অমিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে নারাজি দিয়েছেন পরী মনি। আজ বুধবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৯-এর বিচারক হেমায়েত উদ্দিনের আদালতে তিনি এ নারাজি দেন। এ সময় তিনি বলেন, আমার জানা মতেমামলাটি ঠিকভাবে তদন্ত হয়নি। মামলাটির তদন্ত একতরফাভাবে হয়েছে। বিজ্ঞাপন এদিন মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। এ জন্য পরী মনি আদালতে উপস্থিত হয়েআদালতে অভিযোগপত্রের ওপর নারাজি দেন। অপরদিকে নাসির ও অমি আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। পরী মনির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত জামিনের বিরোধিতা করে বলেন, আসামিরা জামিনের পর পরী মনিকে ভয়-ভীতি দেখিয়েছে। আমরা আসামি নাসির ও অমির জামিন বাতিলের আবেদন করছি। এ ছাড়া মামলার কিছু গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষী, সিসিটিভি ফুটেজ, কয়েকজনের সাক্ষী তদন্তে উঠে আসে নাই। তাই আমরা চার্জশিটের ওপর নারাজি দিয়েছি। অন্যদিকে নাসির ও অমির জামিন শুনানিতে তার আইনজীবীরা বলেন, জামিনের কোনো শর্তভঙ্গ করেননি তারা। তাই তাদের জামিন আবেদন করছি। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক আদালত তাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন। এ ছাড়া আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে নথি পর্যালোচনা করে নারাজির আদেশ পরে দেবেন বলে জানান। গত ৬ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কামাল হোসেন আদালতে এ অভিযোগপত্র জমা দেন। এ মামলার অপর আসামি শহিদুল আলম পলাতক রয়েছে। এর আগে গত ১৪ জুন ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টার অভিযোগে নাসির উদ্দিন ও তার বন্ধু অমির নাম উল্লেখ করে এবং চারজনকে অজ্ঞাত আসামি করে পরী মনি সাভার থানায় মামলা করেন।