সুইডেনে বাংলাদেশ দূতাবাসে শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী পালন

title
১২ দিন আগে
শুক্রবার যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী পালন করেছে স্টকহোমস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস। দিবসটি উপলক্ষ্যে শুক্রবার দূতাবাস প্রাঙ্গণে আলোচনাসভা ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও স্থানীয় বাংলাদেশি কমিউনিটির অনেক সদস্য অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ শেষে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। বিজ্ঞাপন দিবসটি উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন দূতাবাসের কর্মকর্তাগণ। এরপর শেখ কামালের গৌরবময় কর্মজীবনের ওপর নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। কাউন্সিলর ও দূতাবাস প্রধান আমরিন জাহানের উপস্থাপনায় এবং রাষ্ট্রদূত মেহ্দী হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিগণ শেখ কামালের জীবন ও কর্মের ওপর আলোকপাত করে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শেখ কামাল ছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ পুত্র ও সাফল্যের অনন্য উৎস এবং বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ এবং স্বাধীনতার পর দেশ পুনর্গঠনে তিনি অসাধারণ ভূমিকা রেখেছেন। আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে যারা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের সরাসরি সহচর ছিলেন, তারা শেখ কামালের সাথে কাজ করার বিভিন্ন অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে বিভিন্ন অপপ্রচারের জবাব দেন এবং প্রকৃত ইতিহাস তুলে ধরেন বক্তব্য রাখেন। রাষ্ট্রদূত মেহ্দী হাসান তাঁর বক্তব্যের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর পরিবারের সকল শহিদ সদস্যদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা প্রকাশ করেন। তিনি নব্য স্বাধীন বাংলাদেশের রাজনীতি, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নয়নে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের অপরিসীম অবদান এর কথা তুলে ধরে বলেন, তাঁর প্রদর্শিত পথ, আদর্শ এবং দিক-নির্দেশনা বাংলাদেশের তরুণদের জন্য আজও এক অনুকরণীয় মডেল।