ছাত্রের পিটুনিতে শিক্ষকের মৃত্যু

title
২ মাস আগে
নিহত ৩৭ বছর বয়সি শিক্ষক উৎপল কুমার সরকার সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া থানার এঙ্গেলদানি গ্রামের মৃত অজিত সরকারের ছেলে শিক্ষক৷ তিনি আশুলিয়ার চিত্রশাইল এলাকায় হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক এবং শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন৷ উৎপল পরিবার নিয়ে ঢাকার মিরপুরে থাকতেন৷ তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করে এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন৷ সোমবার দুপুরে উৎপলের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান আশুলিয়া থানার এসআই এমদাদুল হক৷ এসআই এমদাদুল বলেন, ‘‘শনিবার দুপুরের দিকে কলেজের মাঠে ওই শিক্ষকের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় দশম শ্রেণির এক ছাত্র ৷ এতে তিনি গুরুতর আহত হন ৷ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সময় নিয়ম-কানুন মানাতে শাসন করতে হয়েছে৷ হয়তো এমন কোনো ক্ষোভ থেকেই হামলা করেছে ওই ছাত্র৷ তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে ৷’’ প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ সাইফুল হাসান বলেন, ‘‘ঘটনার দিন আমাদের স্কুলে মেয়েদের ক্রিকেট খেলা চলছিল ৷ দুপুরে মাঠের একপাশে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষক উৎপলকে হঠাৎ করে এসে ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প দিয়ে এলোপাথাড়ি আঘাত করতে থাকে ওই ছাত্র ৷ স্ট্যাম্পের আঘাতে শিক্ষকের মাথা ফেটে যায়৷ চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে তিনি মারা যান৷’’ ‘‘উৎপল স্যার স্কুলের শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি ছিলেন৷ তিনি ছাত্রদের বিভিন্ন সময় চুল কাটতে বলাসহ বিভিন্ন আচরণগত সমস্যা নিয়ে কাউন্সেলিং করতেন৷ বিভিন্ন অপরাধের বিচারও করতেন তিনি৷ হয়ত কোনো কারণে সেই শিক্ষকের ওপর ক্ষোভ থেকে ছাত্রটি এই ঘটনা ঘটিয়েছে৷’’ নিহতের ভাই অসীম কুমার সরকার বলেন, ‘‘বিভিন্ন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে জানতে পেরেছি, ওই ছাত্র মেয়েদের ইভটিজিংসহ উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করত৷ তাকে শাসন করায় আমার ভাইকে মেরে ফেলেছে৷ আমি প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে এর উপযুক্ত বিচার চাই৷’’ এনএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)