সাংবাদিকদের নিয়ে গ্রামীণফোনের ফাইভজি কর্মশালা

title
এক মাস আগে
টেকশহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গ্রামীণফোন ১৮ এপ্রিল , সোমবার ‘ফাইভজি: দ্য ফিউচার অফ কানেক্টিভিটি’ শীর্ষক একটি ক্যাপাসিটি বিল্ডিং সেশন এর আয়োজন করেছে । সহযোগিতায় ছিল ঢাকায় টেলিযোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন টেলিকম অ্যান্ড টেকনোলজি রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি)। আলোচ্য বিষয় , ফাইভজি প্রযুক্তি কী ও বাংলাদেশে এই প্রযুক্তির সম্ভাবনা কেমন। সেশনে গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে দু’জন প্রধান বক্তা ছিলেন মঈনুল মোমেন, ফাইভজি লিড অ্যান্ড হেড অব কোর নেটওয়ার্ক সার্ভিস এবং এ. কে. এম আল আমিন, হেড অব নেটওয়ার্ক সার্ভিসেস। অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান ভার্চুয়াল মাধ্যমে বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি বলেন, কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে ১৬৭ বছরেরও বেশি ঐতিহ্য বহন করা টেলিনর গ্রুপের অংশ হিসেবে আমাদের ফাইভজি প্রযুক্তি নিয়ে সক্ষমতা, দক্ষতা ও বোঝাপড়া রয়েছে। নিঃসন্দেহে, ভবিষ্যতে ফাইভজি অ্যাডভান্সড, হাই-স্পিড ইন্ডাস্ট্রিয়াল কানেক্টিভিটির ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তাই, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের সুবিধা ভোগ করতে হলে আমাদের চলমান ডিজাটালাইজেশনের ধারাকে অব্যাহত রাখতে হবে; তাহলেই আমরা আমাদের লক্ষ্য অনুযায়ী সত্যিকার অর্থে “স্মার্ট বাংলাদেশ” গড়ে তুলতে পারবো। তিনি বলেন , ফাইভজির সফল প্রস্তুতিতে অর্থবহ ইউজ কেস প্রয়োগে এবং দেশের সবার স্বার্থে ফাইভজি-বান্ধব রেগুলেটরি ফ্রেমওয়ার্ক তৈরিতে, পাশাপাশি বৈশ্বিক বাজারে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখার ব্যাপারে আমরা প্রত্যাশী। অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির সিসিএও(ভারপ্রাপ্ত) হোসেন সাদাত, হেড অব কমিউনিকেশনস খায়রুল বাশার, হেড অব এক্সটার্নাল কমিউনিকেশনস মুহাম্মদ হাসান। টিআরএনবি’র সভাপতি রাশেদ মেহেদী ও সাধারণ সম্পাদক মো. মাসুদুজ্জামান রবিন সহ সংগঠনটির সকল সদস্যবৃন্দ সেশনে অংশগ্রহণ করেন।