দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনে রাজশাহী ট্রেনস্টেশনে মহিউদ্দিন রনি

title
১৬ দিন আগে
রাজশাহী রেলস্টেশনে গিয়ে সুর পাল্টে গেছে মহিউদ্দিন রনির। রেলের নানা দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনের অংশ হিসেবে তিনি বিকেলে কর্মসুচি পালন করেন। এসময় রেল কর্মকর্তাদের পক্ষে সাফাই গান তিনি। পুরোটা সময় ছায়ার মতো পাশে ছিলেন পশ্চিমাঞ্চল রেলের মহাব্যবস্থাপক। রেলের টিকিট কালোবাজারির বিরুদ্ধে একাই লড়ে দেশজুড়ে বাহবা পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনি। তবে ঢাকার কর্মসুচি স্থগিতের পর এবার রাজশাহীতে আসেন তিনি। শুক্রবার বিকেলে রাজশাহী রেল স্টেশনে যাত্রীদের মাঝে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ, প্রতিবাদী গান ও পারফর্মিং আর্ট কর্মসুচি পালন করেন। ঢাকায় প্রতিবাদী মহিউদ্দিন রনি রাজশাহী এসে পাল্টে গেছেন। মহিউদ্দিন রনির কর্মসুচি পালনের খবরে আগে ভাগেই রাজশাহী রেলস্টেশনে ছুটে আসেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক। পুরো কর্মসুচি জুড়ে রনির সাথে ছিলেন তিনি। মহিউদ্দিন রনির কর্মসুচিতে অংশ নেয় আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী। এদিকেরেলওয়ের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতি নিয়ে আন্দোলন করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের ছাত্র মহিউদ্দিন রনিসহ ৩ শিক্ষার্থীকে রেলওয়ে মন্ত্রণালয়ের অংশীজন সভায় প্রতিনিধি করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। উপ-সচিব আলমগীর হুছাইন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে মনোনীত অন্য দুই শিক্ষার্থী হলেন কামরুন্নাহার মুন্নী, রিফাত জাহান শাওন। রনি বলেন, ৬ দফা দাবি বাস্তবায়নে যাত্রীদের সুবিধা অসুবিধা তুলে ধরতে প্রতিনিধি হিসেবে বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করবেন তিনি। গত ৬ জুলাই থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত রেলওয়ের বিভিন্ন অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা, দুর্নীতি নিয়ে টানা ১৯ দিন কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে অবস্থান কর্মসূচি চালান রনি। শুরুতে একা হলেও পরে তার সহপাঠীরা যোগ দেন। এ ঘটনায় ব্যাপক আলোচনায় আসেন তিনি। সংহতি জানিয়ে দেশের বিভিন্ন স্টেশনে একাত্মতা প্রকাশ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন অন্য শিক্ষার্থীরাও।