শ্রেয়া ঘোষালের নামে বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের সঙ্গে প্রতারণা

title
২০ দিন আগে
ছবি: সংগৃহীত ভারতের কণ্ঠশিল্পী শ্রেয়া ঘোষালের নাম করে কলকাতার বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের সঙ্গে অন্তত আট লাখ রুপি (সাড়ে দশ হাজার ডলার) প্রতারণার একটি ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে কলকাতা পুলিশ। খবর হিন্দুস্থান টাইমসের। বাংলাদেশে শ্রেয়া ঘোষালের একটি সঙ্গীতানুষ্ঠান আয়োজনের কথা বলে মুম্বাইয়ের একটি সংস্থা কলকাতার বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের কাছ থেকে ওই পরিমাণ টাকা অগ্রিম বাবদ নিয়েছিল বলে অভিযোগ। কিন্তু পরে জানা যায়, শিল্পীর সঙ্গে আসলে সংস্থাটির কোনো যোগাযোগই নেই, আর সংস্থাটিও পুরোপুরি ভুয়া। ওই কনসার্ট আয়োজনের জন্য গত জানুয়ারি মাসেই মুম্বাইয়ের ‘হিটমেকার্স প্রোডাকশনস প্রাইভেট লিমিটেড’ নামে একটি সংস্থার সঙ্গে বাংলাদেশ উপ-দূতাবাস কর্তৃপক্ষের চুক্তি সম্পাদিত হয়েছিল। সংস্থাটির সঙ্গে উপ-দূতাবাসের যোগাযোগ করিয়ে দিয়েছিলেন চিরন্তন বন্দ্যোপাধ্যায় নামে কলকাতারই একজন শিল্পী। উপ-দূতাবাস সূত্রে জানা গেছে, কনসার্টের জন্য অগ্রিম বাবদ হিটমেকার্সের কৃষ্ণ শর্মা নামে একজন ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে আট লাখ রুপি পাঠান তারা। এরপর শ্রেয়া ঘোষালের নাম করে ইমেইল ও একটি হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বার থেকে এর জন্য ধন্যবাদ জানানো হলে তারা নিশ্চিন্ত ছিলেন– বিষয়টি নিয়ে তখন কোনো সন্দেহই হয়নি। এমনকি ওই ইমেইল অ্যাকাউন্ট থেকে অনুষ্ঠানের সময় ঢাকার ভালো পাঁচতারা হোটেলে দুটি রুম বুক করারও অনুরোধ জানান সেই ভুয়া ‘শ্রেয়া ঘোষাল’! কিন্তু প্রস্তাবিত অনুষ্ঠানের দিন এগিয়ে এলেও হিটমেকার্স সংস্থার কাছ থেকে আর কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে নড়েচড়ে বসে কলকাতার ডেপুটি হাইকমিশন। ইমেইল বা হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টও নীরব দেখে তারা অবশেষে বুঝতে পারেন– পুরো বিষয়টিতেই প্রতারণার শিকার হয়েছেন। এরপরই উপ-দূতাবাসের পক্ষ থেকে কলকাতা পুলিশের প্রতারণা দমন শাখায় অভিযোগ জানানো হয়। সম্প্রতি মামলাটি কলকাতা হাইকোর্টে শুনানির জন্য উঠলে বিচারপতি রাজশেখর মান্থা কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগকে সেটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এরপরই তারা অন্যতম অভিযুক্ত চিরন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়কেও জেরা করেন, যিনি জানিয়েছেন তিনি নিজেও হিটমেকার্সের প্রতারণার শিকার। আরও পড়ুন: ধানুষকে নিজেদের সন্তান দাবি বয়স্ক দম্পতির! ইউএইচ/