হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ! সানি লিওনের গ্রেফতার দাবি

title
৬ মাস আগে
ছবি: সংগৃহীত সম্প্রতি সানি লিওনের মিউজিক ভিডিও মধুবন মে রাধিকা নাচে মুক্তি পেয়েছে। সেই গানের কথা নিয়েই সমস্যার সূত্রপাত। এবার টুইটারে সানি লিওনের গ্রেফতার দাবি করছেন হিন্দু ধর্মের অনুসারীরা। এই ভিডিওর জন্য টুইটারে সানি লিওনকে গ্রেফতারের দাবি তুলেছে নেটিজেনরা। টুইটারে ট্রেন্ডিং হচ্ছে হ্যাশট্যাগ অ্যারেস্ট সানি লিওন। এক নেটিজেনের কথায়, এই অভিনেত্রী হিন্দু ভাবাবেগকে অপমান করেছে। সব সময়ে এরা হিন্দু ধর্ম ও হিন্দু দেবদেবীদের অপমান করে। আর তাই এবার স্থায়ী একটা পদক্ষেপ চাই এদের বিরুদ্ধে। এর আগে ভারতের মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র এই গানের কথা নিয়ে আপত্তি জানিয়েছেন। তার অভিযোগ, এই গানের কথা হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করেছে। এই অভিযোগের পরে মিউজিক লেবেল সংস্থা সারেগামা গানের কথা বদলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আরও পড়ুন: একে অপরের মুখ দেখতে চান না নাগা-সামান্থা বিজেপি মন্ত্রী দাবি করেছিলেন, তিন দিনের মধ্যে এই গানের ভিডিও সরিয়ে ফেলতে হবে এবং সানি লিওন ও গায়িকাকে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান। তিনি বলেছিলেন, কয়েক জন বিধর্মী অনবরত হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগে আঘাত করেই চলেছে। মধুবন মে রাধিকা নাচে-র ভিডিও খুবই নিন্দনীয় একটি প্রচেষ্টা। আমি সানি লিওন, শারিব ও টোশিকে সাবধান করছি এটা বোঝার জন্য। ক্ষমা চেয়ে তারা যদি ভিডিওটি সরিয়ে না দেয় তিন দিনের মধ্যে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হবে। এর পরেই সারেগামা জানায়, বদলে দেওয়া হবে গানের কথা। সারেগামার পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়, অভিযোগের কথা মাথায় রেখে এবং যাতে কারো ভাবাবেগে আঘাত না লাগে, তার জন্য গানের কথা বদলে ফেলা হচ্ছে। এমনকি গানের নাম বদলে মধুবন-এর জায়গায় অন্য কিছু রাখা হবে। ৩দিন আগে এই গান ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে। আর তার পরেই বিজেপি মন্ত্রী আপত্তি জানান। এই গানটি গেয়েছেন কণিকা কাপুর । উল্লেখ্য, মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রীর আগে এই ভিডিও নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন মধুরার এক পুরোহিত মহেশ পাঠক। সূত্র: নিউজ১৮