অবশেষে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বাতিল করছে যুক্তরাষ্ট্র

title
এক মাস আগে
ছবি: সংগৃহীত। করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন এখন ছড়িয়েছে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশেই। এর আগে প্রথম এই ভাইরাস সম্পর্কে বিশ্বকে জানান দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপর পরই এই অঞ্চলের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কিছু দেশ। তবে এবারে সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। খবর এনডিটিভির। এ নিয়ে মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) বাইডেন বলেন, করোনার বিরুদ্ধে জনস্বাস্থ্যের সুরক্ষার জন্য এখন আর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন নেই। তাই চলতি সপ্তাহের শুক্রবারই (৩০ ডিসেম্বর) দক্ষিণ আফ্রিকা এ ওই অঞ্চলের দেশগুলো থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হবে। এর আগে হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে এই বিষয়টি জানানো হয়েছিল। তবে মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দিয়েছেন বাইডেন। আরও পড়ুন: ফ্রান্সে রেকর্ড গড়ে করোনায় দৈনিক সংক্রমণ প্রায় ২ লক্ষ! এ সময় বাইডেন বলেন, ওমিক্রন এখন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের শতাধিক দেশে ছড়িয়ে গেছে। তবে এখন দেখা যাচ্ছে, আগে এটিকে যতটা ভয়াবহ মনে করা হচ্ছিল আদতে ওমিক্রন সেই তুলনায় কম আশঙ্কাজনক। বিশেষজ্ঞরাও বলেছেন, যারা করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন তারা মারাত্মকভাবে অসুস্থতা থেকে নিরাপদ। তাছাড়া ওমিক্রনকে বুঝতে ও গবেষণা করতে আফ্রিকার বিজ্ঞানীরা মার্কিন গবেষকদের অনেক সহায়তা করেছেন। তাই এখন এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কোনো প্রয়োজন নেই। প্রসঙ্গত, করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের কথা বিশ্বের কাছে প্রথম তুলে ধরে দক্ষিণ আফ্রিকা। এরপর ওমিক্রনের উৎস আখ্যা দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাসহ বতসোয়ানা, জিম্বাবুয়ে, নামিবিয়া, লেসোথো, এসওয়াতিনি, মোজাম্বিক এবং মালাউইর ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কয়েকটি দেশ। এ নিয়ে প্রথম থেকেই বিরোধীতা করে আসছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এবারে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) পরামর্শে এসব দেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। এসজেড/