পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যা বললেন বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেকটর

title
২ মাস আগে
পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেকটর মার্সি টেম্বন। বাংলাদেশকে নিয়ে বিশ্ব ব্যাংক গর্বিত বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেকটর মার্সি টেম্বন। বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের সম্পর্ক আরও এগিয়ে যাওয়ার সময় এখনই। পদ্মা সেতু সম্পন্ন করতে পারায় বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানান তিনি। বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেকটর মার্সি টেম্বন বলেন, অনেক দীর্ঘ সময় ধরেই বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী। বিশ্ব ব্যাংক মনে করে যে পদ্মা সেতু সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে বাংলাদেশের জন্য লাভজনক একটি প্রোজেক্ট। বাংলাদেশের মানুষের দুর্ভোগ কমাতে এবং ব্যবসা, যোগাযোগ ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধিতে পদ্মা সেতু দারুণ অবদান রাখবে। দারিদ্র দূরীকরণেও এটি ভূমিকা রাখবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। বিশ্ব ব্যাংক অত্যন্ত আনন্দিত যে সেতুর নির্মাণ শেষ হয়েছে এজন্য বাংলাদেশের মানুষকে অনেক অভিনন্দন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিশ্ব ব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেকটর বলেন, দেখুন, বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের সাথে আছে ১৯৭১ সাল থেকে এবং এখন পর্যন্ত বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী। ২০১১ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত বিশ্ব ব্যাংক ২২ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ সহযোগিতা দিয়েছে। বুঝতেই পারছেন যে, বাংলাদেশ ও বিশ্ব ব্যাংক পরস্পরের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। আমরা এখানে সেতু নির্মাণ উদযাপন করতে এসেছি। এটা নিঃসন্দেহে বাংলাদেশিদের জন্য খুবই গর্বের দিন, আমরাও তাদেরকে নিয়ে গর্বিত। আমি মনে করি আমাদের সামনে আগানো উচিত। আমাদের দেখা উচিত কীভাবে সেতুটি নির্মাণ শেষ হলো এবং এতে সবাই কতোটা খুশি হয়েছেন। /এসএইচ