ধানুষকে নিজেদের সন্তান দাবি বয়স্ক দম্পতির!

title
২০ দিন আগে
দক্ষিণী সিনেমার তারকা ধানুষ। ছবি: সংগৃহীত ছয় বছর আগের মামলায় আবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের তলব করেছে দক্ষিণী তারকা ধানুষকে। যে মামলায় দুই বৃদ্ধ বৃদ্ধা দাবি করেছিলেন, ধানুষের জন্মদাতা তারা। ইন্ডিয়া টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয় বয়স্ক ওই দম্পতি দাবি করেছেন, ধানুষ তাদের তৃতীয় সন্তান। তামিলনাড়ুর মাদুরাই জেলার মেলুরের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছিলেন তারা। ২০১৬ সালে গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিল এই ঘটনা। ওই দম্পতি দাবি করেছিলেন, ধনুষকে তারা জন্ম দিয়েছেন। কিন্তু একাদশ শ্রেণীতে পড়াশোনা করার সময়ে ধানুষ নাকি বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন চেন্নাইতে। অভিনেতা হওয়ার শখ ছিল তার। তারপর থেকে আর বাড়ি ফেরেননি। কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেননি বলেও অভিযোগ বৃদ্ধ দম্পতির। তাদের দাবি, তাদের ‘সন্তান’ মাসে ৬৫ হাজার টাকা করে পাঠালে তাদের সুবিধা। কারণ আর্থিক অনটনে ভুগছে তারা। দম্পতি নাকি বহু দিন ধরে তাদের তৃতীয় সন্তানের খোঁজ করেছেন। কিন্তু সফল হয়নি। এক সময়ে পর্দায় ধানুষকে দেখে তারা চিনতে পারেন বলে দাবি তাদের। চেন্নাইতে গিয়ে ধানুষের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল। কিন্তু অভিনেতা দেখা করেননি। ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে ধানুষ সেই মামলা জেতেন। আদালত ওই দম্পতির আবেদন খারিজ করে দেয়। ধানুষ মেডিক্যাল পরীক্ষাও করিয়েছিলেন তখন। কিন্তু তার ফলাফলে নির্দিষ্ট কিছু ছিল না। তামিল পরিচালক কস্তুরী রাজা এবং বিজয়লক্ষ্মীকেই নিজের বাবা-মা হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন ধানুষ। কস্তুরী রাজা-বিজয়লক্ষ্মী এই দাবি প্রমাণের জন্য ধানুষের জন্ম সনদ জমা দিয়েছিলেন। আবেদনকারী বৃদ্ধ দম্পতি অবশ্য সে সব মিথ্যা বলে দাবি করেছিল। ২০২০ সাল পর্যন্ত এই আইনি লড়াই চলছিলা এবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে সেই দম্পতি। এনবি/